BEST NURSING COLLEGE

          উচ্চমাধ্যমিক তো পাস, এরপর কোনদিকে পড়া যায় বা কোনদিকে পড়লে সহজেই চাকুরি পাওয়া যায় এটাই এখন চিন্তার বিষয় বর্তমান যুগে। বেশিরভাগ মানুষের চিন্তা ভাবনা এবং লক্ষ্য বলতে পারেন নার্সিং পড়তে যাওয়া বা ছেলে মেয়েদের পাঠিয়ে দেওয়া। এবার আরও এক চিন্তার বিষয় GNM (GNM NURSING) নাকি B.Sc (BSc NURSING) কোনটা ভালো। যদি ছাত্র-ছাত্রী আর্টস এর হয় তাহলে একটাই রাস্তা GNM নার্সিং। এবার যদি সায়েন্সের হয় তাহলে আবার চিন্তা, GNM না BSc কোন টা ভালো, কোন টা পারবে, কোনটাই চাকুরি তাড়াতাড়ি পাওয়া যাবে।

যাইহোক সিধান্ত নেওয়া হয়ে গেছে এবার কলেজ পছন্দ করার পালা। কোন স্টেটে, কোন কলেজ ভালো এবার এটা নিয়ে চিন্তা। সবার আগেই আমরা ছুটে যায় উমুক বাবু, আমার উমুক বন্ধু, বা আমার উমুক কাকু নার্সিং এ ভর্তি নিয়ে কাজ করছেন কনসালটেন্ট হিসেবে উনি খুব ভালো। প্রতি জেলায় বললে ভুল হবে, প্রতি ব্লকে এরকম কমপক্ষে ৫-১০ টি কনসালটেন্ট অফিস দেখতে পাবেন বর্তমানে।

আমাদের এই পোস্টটির উদ্দেশ্য:   

    আমাদের এই লেখাটির উদ্দেশ্য কোনো প্রতিষ্ঠান, এজেন্ট বা পার্সোনাল ভাবে কাউকেই আঘাত করার জন্য নয়। আমাদের টিম এই নিয়ে যথেষ্ট বিস্তারিত ভাবে খতিয়ে দেখার পর লিখা হয়েছে। আমাদের টিমের সকলেই বিভিন্ন স্টেটের বিভিন্ন নার্সিং কলেজ থেকে উত্তির্ন বা শিক্ষারত। তাই আমাদের মনে হয়েছে বিভিন্ন স্টেটের বিভিন্ন কলেজ গুলো সম্মন্ধে আপনাদের সকলের একটু জানা দরকার। তাতে ছাত্রছাত্রীর সাথে পিতামাতারও সাহায্য হবে আশা রাখছি। এবং সবদিক থেকে খতিয়ে দেখা দরকার। তারপর সেই কলেজে ভর্তি সম্বন্ধে সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত। সেটা কোন এজেন্ট এর মাধ্যমে না সরাসরি যে ভাবেই হোক না কেন।

নার্সিং কলেজে ভর্তির সম্মন্ধে গুরুত্বপূর্ন কিছু কথা (GNM and BSc Nursing):

   যেখানেই ভর্তি হন, বা কাউকে করেন না কেন ২ টি কথা মাথাই অবশ্যই রাখবেন: –

১. থাকার ব্যাপার, মানে হোস্টেল কেমন। কতটা সুরক্ষিত থাকবে আপনার ছেলে বা মেয়ে। মেয়ে হলে তো অবশ্যই খুব ভালো ভাবেই জোর দেওয়া দরকার, বর্তমানে যা পরিস্থিতি।

২. এবং আর একটি সব থেকে গুরুত্বপূর্ন সেটি হচ্ছে শিক্ষা (প্র্যাক্টিক্যাল + ক্লাস/ থিওরি) ।

  এখানে খাওয়ার ব্যাপারে বললাম না, কেননা বাইরে পড়াশোনা করতে গেলেই বাড়ির মতো হবে না। ওটা এডজাস্ট করতেই হবে।

   ভর্তির বিষয়ে বলতে গেলে বলা যায় সব রাজ্যেই কম বেশি ভালো কলেজ আছে। আমরা মোটামুটি ৩ টি রাজ্য যথা: ওড়িশা (Orisha), অন্ধ্রপ্রদেশ (Andhra Pradesh), এবং কর্ণাটক/ ব্যাঙ্গালোর (Karnataka/Bangalore) এই নিয়েই আলোচনা করছি।

প্রথমত: কোন স্টেটে ভালো কলেজ, কোন স্টেটে খরচ কম এবং শিক্ষা ভালো (Best Nursing College in Andhra Pradesh, Best Nursing College in Karnataka/ Bangalore):

   এই প্রসঙ্গে বলে রাখি, সব রাজ্যেই কম বেশি ভালো কলেজ আছে। সেগুলো একটু খুঁজে বের করতে হবে এবং যাচাই করতে হবে কোন এজেন্ট এর কাছে নয়। সেই কলেজে পড়ছে এরকম কোন ছাত্রছাত্রী দের কাছে।

  কর্ণাটক, অন্ধ্রপ্রদেশে তো আছেই, ওড়িশা তে অনেক ভালো কলেজ আছে। এবং ওড়িশা তে সব রাজ্যের থেকে এখনও খরচ অনেক কম। এবং আমাদের রাজের থেকে দুরত্ব অনেক কম, তাই যাতায়াত এর খরছ টাও কমে যাবে।

  কিন্তু এজেন্ট এখানে করাই না তাদের অনেক কারন থাকে, হয় এখানে সেরকম কোন লাভজনক কমিশন পায় না। নাহই এজেন্ট হিসেবে মাথা গলাতে সুযোগ পায়না। সব স্টেটেই যেখানে খ্রিশ্চান মিশনারি এর অন্তর্ভূক্ত কলেজ থাকে তাদের নার্সিং শিক্ষা নিঃসন্দেহে ভালো। খরচ অনেক টাই কম।  এবং সেখানে বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই এজেন্ট মাথা গলাতে সুযোগ পাই না।

  তাহলে, যে স্টেটেই ভর্তি হন বা ছেলে মেয়ে দের ভর্তি করেন না কেন আসল দিকটি ভূলে যাবেন না।

দ্বিতিয়তঃ কোন রাজ্যে ভর্তি হবেন সেটা ঠিক হয়ে গেছে এবার “পড়াশুনা” (Best Nursing College in Andhra Pradesh, Best Nursing College in Karnataka/ Bangalore, Best Nursing College in Orisha):

   যেকোনো রাজ্যের (Andhra Pradesh, Karnataka/ Bangalore) সমস্ত নার্সিং কলেজ গুলি মোটামুটি ৩ টি ভাগে ভাগ করা যায়:

  1. নার্সিং কলেজ সাথে মেডিকেল কলেজ (Nursing College with Medical College)
  2. নন-মেডিকেল নার্সিং কলেজ কিন্তু নিজেদের হাসপাতাল আছে (Non-Medical Nursing College with Hospital)
  3. নন-মেডিকেল কলেজ এবং নিজেদের হাসপাতাল নেই (Non-Medical, Non-Hospital Nursring College)
1.নার্সিং কলেজ সাথে মেডিকেল কলেজ (Nursing College with Medical College GNM and BSc): –

 এগুলি সবকটাই ভালো হয়। যেহেতু এদের নিজস্ব মেডিকেল কলেজ তাই স্টুডেন্টস দের পড়াশোনা এখানে খুবই ভালো হয়। প্র্যাক্টিক্যাল ও খুব ভালো মানের এক কথায় উচ্চ মানের কোয়ালিটি এডুকেশন পাওয়া যায়। এই কলেজ গুলির কোর্স ফিস একটু বেশি হয় সাধারনত।

2.নন-মেডিকেল নার্সিং কলেজ কিন্তু নিজেদের হাসপাতাল আছে (Non-Medical Nursing College with Hospital GNM and BSc): –

  এই কলেজ গুলির সব থেকে ভালো দিক থিওরি ক্লাস যেমন এই হোক না কেন এদের প্রাকটিক্যাল ফেসিলিটি যথেষ্ট ভালো, উচ্চ মানের বলতে পারেন। মেডিকেল কলেজ না থাকার জন্য এদের রেট একটু কম হয় তুলনামুলক।

3.নন-মেডিকেল কলেজ এবং নিজেদের হাসপাতালও নেই (Non-Medical, Non-Hospital Nursring College GNM and BSc): –

  সব রাজ্যেই এই ধরনের কলেজ গুলোই বেশি। একেবারে বলতে পারেন আগাছার মতো এখানে সেখানে গজিয়ে উঠেছে। কলেজ একজনের বাড়িতে তো হোস্টেল আর একজনের বাড়িতে এই রকম।  তবে হ্যাঁ আগাছার মধ্যেও কিছু ভালো মানের গাছ আছে এবং থাকতেই পারে, তার পরিমান খুবই কম। এই আগাছা গুলো নিয়েই এজেন্ট দের রমরমা ব্যাবসা কেননা কমিশন বেশি। এবং এদের মধ্যেই কিছু গুটি কয়েক ভালো গাছ বা চারা যেগুলো থাকে, তাদের সামনে রেখেই এজেন্ট দের ব্যাবসার ঘুটি সাজানো।

 এই কলেজ গুলো নিয়েই যত সমস্যা ছাত্রছাত্রী দের হয়। এই কলেজ গুলোতে নিজস্ব হাসপাতাল বা মেডিক্যাল কলেজ না থাকায় প্রাকটিক্যাল বছরে 1-2 মাস হয় বা প্রায় হয়না বললেই চলে। ফ্যাকাল্টি (ইন্টারন্যাল+ এক্সটারন্যাল) ও ঠিক-ঠাক থাকে না। ক্লাস সেরকম হয় না, অনেক কলেজে তো সিনিয়ার দিয়ে মানে ফ্যাকাল্টির অভাবে 2nd Year বা 3rd Year এদের দিয়ে ক্লাস করানো হয়।

কিন্তু এই কলেজগুলোর প্ৰতি খুবই বেশি আকৃষ্ট হন, ছাত্রছাত্রী বা পিতা মাতাও। কেননা অনেক অফার থাকে, বেশি ছুটি পাওয়া যায়, কম খরছে হবে। খাওয়া খুবই ভালো একদম ঘরের মতো, সপ্তাহে ২ দিন মাংস, ২ দিন মাছ, ২দিন ডিম ইত্যাদি ইত্যাদি। আর পিতামাতাও কম পয়সায় পাচ্ছি, এবং নানারকম অফার এর কথা ভেবে পাঠিয়ে দেন। যখন বোঝেন ভুল করলাম তখন দেখা যায় ছাত্রছাত্রী দের অরিজিনাল ডকুমেন্টস এবং ৫০-৬০ হাজার টাকা জমা করে দিয়েছেন। কিছু আর করার থাকেনা তখন। বাধ্য হয় ওই কলেজে ৩-৪ বছর বছর কাটাতে কোনো ভালো পড়াশোনা ছাড়াই।

আরও একটা ব্যাপার এখন চলছে অবাক হওয়ার মতো। সেটা হচ্ছে এইসব কলেজের ছাত্রছাত্রী ভর্তির পরের বছর থেকে নিজেও এজেন্ট হয়ে যাচ্ছে বা কোন এজেন্ট এর আন্ডারে কাজ করতে শুরু করছে। এক-একটা ভর্তির পিছনে ২০,৩০ বা ৫০ হাজার টাকা কমিশন পাওয়ার আশায়। সে তার গ্রামের, বা পাশের গ্রামের ছেলে মেয়ে দের ধরে নিয়ে যাচ্ছে কমিশন এর লোভে।

বিঃদ্রঃ- সব ধরনের কলেজের ক্ষেত্রেই সিটি মানে শহর এবং নন- সিটি এর উপরেও ফিস কম বেশি হয়।

এই প্রসঙ্গে সবার শেষে  কয়েকটি গুরুত্বপুর্ন কথাঃ-

  1. ভর্তি করার আগে কলেজ সমন্ধে সমস্ত কিছু জেনে নিবেন অবশ্যই পঠনরত কোন ছাত্রছাত্রীদের থেকে।
  2. কলেজ টি INC (Indian Nursing Council) দ্বারা স্বীকৃত প্রাপ্ত কি না। যেটি প্রতি ৩-৬ মাস অন্তর আপডেট হয়। স্বীকৃত প্রাপ্ত না হলে পুরো পড়াশোনা টা বৃথা হয়ে যাবে। আমাদের এই পেজেও পেয়ে যাবেন লিস্ট, নিচে দেওয়া আছে দেখতে পারেন (GNM and BSc INC List)।

INC লিস্টে আপনার পছন্দের কলেজ এর নাম আছে কি না দেখতে ক্লিক করুন ( এই INC LIST টি 4ই আগস্ট, ২০২০ তে প্রকাশিত হয়েছে): –

এছাড়াও কলেজ ও ভর্তি সক্রান্ত যেকোনো সাহায্যের জন্য আমাদের কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করতে পারেন বা Contact Us এ যোগাযোগ করতে পারেন।।
==========

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *