Best Hepatitis B (জন্ডিস) Treatment with Symptoms in Bengali

হেপাটাইটিস-বি এর সংক্রমণ লিভার ক্যান্সারের ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় ঝুঁকির কারণ! আর এই বিষয়ে আমরা অনেকেরই তেমন কোনও ধারণা নেই। এটি যকৃত বা লিভারের প্রদাহজনিত (Hepatitis B Symptoms in Bengali) অসুখ। মূলত লিভারে ভাইরাসের সংক্রমণের (hepatitis b causes in Bengali) ফলেই এই রোগ হয়। হেপাটাইটিস বি হওয়ার কারণ  – হেপাটাইটিস বি রোগে ব্যাক্তির লিভার খারাপ হয়ে যায়। ‘হেপাটাইটিস বি ফাউন্ডেশন’-এর তথ্য অনুযায়ী, প্রতি বছর ৭ লক্ষ ৮৮ হাজার মানুষের মৃত্যু হয় লিভার ক্যান্সারে (Hepatitis B Causes in Bengali)। এবং প্রতি বছর ১২ থেকে ২০ হাজার মানুষের মৃত্যু হয় আমাদের দেশে। তাছাড়া পৃথিবীর প্রায় ৩ কোটি মানুষ প্রতি বছর হেপাটাইটিস বি-তে আক্রান্ত হচ্ছেন।  হেপাটাইটিস রোগটি একটি ভাইরাল সংক্রমণ। ঠিক সময়ে ধরা পড়লে হেপাটাইটিস-বি নিরাময় (Hepatitis B Treatment in Bengali) করা সম্ভব। গত পাঁচ বছরে অনেক ভাল ওষুধ আবিষ্কার করা হয়েছে। কিন্তু সমস্যা হয় তখনই, যখন উপসর্গ ঠিক সময়ে ধরা পড়ে না। চিকিৎসা দেরিতে শুরু হলে সমস্যা জটিল হয়ে উঠতে পারে।

হেপাটাইটিস -বি আসলে কি? (What is Hepatitis B in Bengali)

যকৃতের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ কাজ হল, রক্তে লোহিত কণিকার আয়ু শেষ হলে, তার অন্তর্গত বিলিরুবিনকে দেহ থেকে নিষ্কাশিত করা। হেপাটাইটিস ভাইরাসের ফলে যকৃতের স্বাভাবিক কাজকর্ম ব্যাহত হয়। ফলে রক্তে বিলিরুবিনের পরিমাণ বেড়ে যায়। এতে দেহ হলদেটে / হলুদ হয়ে পড়ে। প্রতি বছর ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে সারা বিশ্বে লক্ষ লক্ষ মানুষের মৃত্যু হচ্ছে। প্রতিনিয়ত বাড়ছে ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। এমন বেশ কিছু ক্যান্সার রয়েছে যেগুলি প্রাথমিক পর্যায় শনাক্ত করা প্রায় অসম্ভব! যেমন, লিভার বা যকৃতের ক্যান্সার (Hepatitis B Causes in Bengali) । একেবারে শেষের দিকে এর উপসর্গ (Hepatitis B Symptoms in Bengali) বোঝা যায় বলে লিভার বা যকৃতের ক্যান্সার শনাক্ত করা খুবই কঠিন। কারণ, লিভারের বেশিরভাগ অংশই পাঁজরের নীচে ঢাকা থাকে। যাঁদের মদ্যপানের অভ্যাস রয়েছে বা লিভার সিরোসিস রয়েছে, তাঁদের লিভার ক্যান্সারের ঝুঁকি বেশি। এর সঙ্গেই হেপাটাইটিস-বি থেকে হওয়া সংক্রমণের ফলে বহুগুণ বেড়ে যায় লিভার ক্যান্সারের ঝুঁকি।

হেপাটাইটিস -বি হওয়ার কারন কি (Hepatitis B Causes in Bengali)?

হেপাটাইটিস বি খুবই মারাত্মক একটি রোগ। এটি কখনও কখনও ব্যাকটেরিয়া এবং ঔষধের খারাপ ফলাফলের কারণেও হতে পারে। এছাড়াও হেপাটাইটিস ভাইরাসের (Hepatitis B Causes in Bengali) কারণেও হতে পারে। এ ক্ষেত্রে চিহ্নিত করা গিয়েছে মোট পাঁচটি ভাইরাস। যা পরিচিত হেপাটাইটিস এ, বি, সি, ডি, ই নামে। হেপাটাইটিস এ এবং ই সংক্রামিত হয় দূষিত খাদ্য এবং পানীয়ের মাধ্যমে। হেপাটাইটিস বি, সি, ডি সংক্রামিত হয় মূলত ব্লাড ট্রান্সফিউশন এবং একাধিক বার ব্যবহৃত একই ইঞ্জেকশনের সুচ ব্যবহারের মাধ্যমে। এ ছাড়াও ট্যাটু আঁকার সময়েও সতর্কতার অভাবে এই ভাইরাস দেহে ঢুকতে পারে। সংক্রামিত মায়ের দেহ থেকে শিশুর মধ্যে হতে পারে সংক্রমণ। বিভিন্ন ধরনের ভাইরাল হেপাটাইটিসের মধ্যে সবচেয়ে বিপজ্জনক হল হেপাটাইটিস বি এবং সি। কারণ এই দু’ধরনের ভাইরাস থেকে সমস্যা হলে তা চরম পর্যায়ে পৌঁছতে পারে। আবার এই দুটি ভাইরাস থেকে ক্রনিক হেপাটাইটিসও হতে পারে। যা পুরোপুরি নিরাময় (Hepatitis B Treatment in Bengali) করা অনেক ক্ষেত্রে সম্ভব হয় না। ক্রনিক হেপাটাইটিস থেকে লিভার সিরোসিস, লিভার ক্যানসার হওয়ারও আশঙ্কা থাকে।

হেপাটাইটিস বি-এর টিকা (Hepatitis B Vaccine):

হেপাটাইটিস বি-এর টিকা বেশ জনপ্রিয়। এটি নিলে এই রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা প্রায় থাকে না। এ ক্ষেত্রে প্রথমে তিনটি ডোজ় এক মাস অন্তর দিতে হয়। চতুর্থ টিকা দিতে হয় প্রথম ডোজ়ের ঠিক এক বছর পরে। পাঁচ বছর পরে নিতে হয় বুস্টার ডোজ়। এতে হেপাটাইটিস বি ভাইরাসের বিপক্ষে প্রতিরোধ (Hepatitis B Treatment in Bengali) গড়ে ওঠে শরীরে। টিকা নেওয়া না থাকলে যে কোনও বয়সে এই রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা থাকে।

হেপাটাইটিসের লক্ষণ গুলো কি কি? (Hepatitis B Symptoms in Bengali)

অনেক সময়েই দীর্ঘ দিন এই রোগের উপসর্গ ধরা পড়ে না। সংক্রমণের পরে রোগের লক্ষণ প্রকাশ পেতে সময় লাগতে পারে ৩০ থেকে ১৮০ দিন পর্যন্ত। চলুন চিনে নেওয়া যাক হেপাটাইটিস বি-এর প্রাথমিক লক্ষণগুলিকে (Hepatitis B Symptoms in Bengali) …..

১. অতিরিক্ত ক্লান্তি অনুভাব করা।

২. বমি ভাব ও পেটে ব্যাথা।

৩. ত্বক ও চোখ হলদে হয়ে যাওয়া ।

৪. ল‍াল ও গাঢ় রঙের প্রস্রাব ।

৫. জ্বর

৬. মাথা ব্যথা।

৭. বিভিন্ন  জায়গায় চুলকানি। (চুলকানি সংক্রান্ত পোস্ট টি দেখে নিতে পারেন)

৮. হাড়ের জয়েন্টে ব্যথা থাকা, বিশেষ করে ডান দিকের উপরিভাগের জয়েন্টে ব্যথা অনুভব করা।

৯. গায়ের রং ফ্যাকাশে হওয়ার মতো লক্ষণ দেখা দেয় ইত্যাদি।

হেপাটাইটিস বি চিকিৎসা । (Hepatitis B Treatment in Bengali)

হেপাটাইটিস বি ধরা পড়লে সঙ্গে সঙ্গে অভিজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে চিকিৎসা শুরু করা প্রয়োজন। হেপাটাইটিস বি-এর সংক্রমণকে দুভাগে ভাগ করা যায়। যেমন অ্যাকিউট বা তীব্র সংক্রমণ এবং ক্রনিক বা দীর্ঘস্থায়ী সংক্রমণ।

কোনও ব্যক্তি যখন প্রথম বার আক্রান্ত হন, তখন সেটিকে অ্যাকিউট হেপাটাইটিস বলে। প্রাপ্তবয়স্কদের মধ্যে প্রায় ৯০ শতাংশ ক্ষেত্রেই ওযুধের মাধ্যমে এটি সেরে যায়। এ ক্ষেত্রে আক্রান্ত ব্যক্তির শরীরে হেপাটাইটিস বি-এর অ্যান্টিবডি তৈরি হয়, যা তাকে পুনর্সংক্রমণের হাত থেকেও রক্ষা করে।

কিন্তু এই ভাইরাসটিই যখন দীর্ঘ সময় অর্থাৎ ছমাসেরও বেশি সময় ধরে রক্তে থাকে, তখনই তা পরিণত হয় ক্রনিকে। আক্রান্ত শিশুদের মধ্যে প্রায় ৯০ শতাংশ এবং প্রাপ্তবয়স্কদের মধ্যে সাধারণত ৫-১০ শতাংশ ক্রনিক হেপাটাইটিসে আক্রান্ত হয়ে থাকেন।

১. অ্যাকিউট হেপাটাইটিসের ক্ষেত্রে কিছু ওষুধ এবং ইঞ্জেকশনের মাধ্যমে পুরোপুরি সুস্থ (Hepatitis B Treatment in Bengali) হয়ে ওঠা যায় বলে জানাচ্ছেন চিকিৎসকেরা। তবে নিয়মিত রক্ত পরীক্ষা করে দেখতে হবে হেপাটাইটিস বি নেগেটিভ হয়েছে কি না। এ ছাড়া পুরোপুরি সুস্থ হলেও নিয়ম মেনে চলতে হবে।

২. ক্রনিক হেপাটাইটিসের ক্ষেত্রে চিকিৎসা চলবে নিয়মিত। চিকিৎসকের পরামর্শের বাইরে কিছু করা যাবে না। সেই সঙ্গে রোগীর সম্পূর্ণ বিশ্রাম প্রয়োজন।

৩. হেপাটাইটিস বি-র লক্ষণ যদি কোনো ব্যাক্তির মধ্যে ধরা পরে তাহলে তাড়াতাড়ি তাকে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যান।

৪. হেপাটাইটিস বি থেকে সংক্রামিত ব্যাক্তির মধ্যে যদি কোন লক্ষণ না ধরা পরে তাহলে হেপাটাইটিস বি সেই ব্যক্তির রক্ত পরিক্ষা করে বোঝা যেতে পারে।

৫. ব্যাক্তির লিভারের অবস্থা যদি খারাপ হয় তাহলে Liver Biopsy করানো হয়। এছাড়াও HBSAG, Live Function Test, PCR ইত্যাদি করা হয়।

কী খাবেন? (Hepatitis B Home Remedy in Bengali)

১. হেপাটাইটিস বি হলে একেবারেই তেলমশলা যুক্ত খাবার খাওয়া চলবে না।

২. গ্লুকোজ, শরবত খাওয়ালে উপকার পাওয়া যায়।

৩. এ সময়ে শরীরকে যতটা সম্ভব ঠান্ডা রাখতে হয়। তাই আখের রস, ডাবের জল, মৌরি-মিছরি ভেজানো জল খাওয়ানো উচিত। তবে ঠান্ডা লাগার ধাত থাকলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

৪. এ ছাড়াও বেশি করে ফল, শাকসবজি খাওয়া ভাল।

৫. সহজে হজম হয়, এমন খাবার বেছে নেওয়া উচিত।

==========

Share with Your Friends:

Leave a Comment